৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

জীবন বস্তুর উর্ধ্বে, জীবনের গন্ডী নেই, মানবতা বিরোধী সব বিভক্তি ধ্বংসাত্মক

ধর্ম ও জীবন:

বর্ডার মানুষের মনে জাতীয়তাবাদ হিসেবে তৈরি করা হয় এবং বাতিল জালিম অপশক্তির রাজনৈতিক কাঠামো হিসেবে মুলুকিয়তের কাঠামো হিসেবে জমিনে বর্ডার কায়েম করা হয়, বর্ডার বা একক গোষ্ঠীবাদি রাষ্ট্র ই সত্য ও মানবতার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও জুলুমের আধিপত্যের কাঠামো।

বর্ডার বা এক গোষ্ঠীর রাষ্ট্র নেই মানে জীবন ও দুনিয়ার উপর কোনো বাতিলের কর্তৃত্ব নেই। দয়াময় আল্লাহতাআলা ও তাঁর হাবীব সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তথা কলেমা কোরআনুল করীম হাদিস শরীফ এলমে হিদায়াত খেলাফত বর্ডার ভিত্তিক নয় সীমাবদ্ধ নয়।

পবিত্র কলেমার চেতনা ও মানবিক চেতনা এবং বস্তুবাদি জাতীয়তাবাদের রাষ্ট্রীয় কাঠামো বর্ডার তথা এক গোষ্ঠীবাদি স্বৈরদস্যুতন্ত্র মুলুকিয়ত সম্পূর্ণ বিপরীত চেতনা।

দয়াময় আল্লাহতাআলা ও তাঁর হাবীব সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম জীবন ও দুনিয়াকে বর্ডারমুক্ত স্বাধীন করে তৈরি করেছেন – সত্য ও মানবতার শত্রুরা অসৎস্বার্থে বর্ডার তৈরি করে জীবন ও দুনিয়াকে বিভক্ত করে মানবতা বিধ্বংসী সত্য বিরোধী বিশ্ব কাঠামো তৈরি করেছে।

বর্ডার বা এক গোষ্ঠীবাদি রাষ্ট্র সমর্থন করা মানে কলেমা-দ্বীন-খেলাফত জীবন ও ইনসানিয়াত অস্বীকার করে মিথ্যা-জুলুম-স্বৈরদস্যুতার হুকুমত মেনে নেয়া।

বর্ডার যেমন ঈমান পরিপন্থী তেমনি মানবাধিকার হরনকারী। কলেমা বুঝলে বর্ডার স্বীকার করা যায় না, কলেমার মর্মধারায় জীবন সকল বস্তুর উর্ধে রাষ্ট্রেরও ঊর্ধ্বে – জীবন সকল গন্ডীর ঊর্ধ্বে, জীবন কেবল রেসালাতে ইলাহীকে কেন্দ্র করে তাওহীদ ভিত্তিক।

হুব্বুল ওয়াতান নামে প্রচলিত প্রবাদ এটা হাদিস শরীফ নয় (জুরকানী শরীফ)। ওয়াতান বা রাষ্ট্র মানুষ তৈরি করে আর জীবন আল্লাহতাআলার তৈরি। প্রচলিত এক গোষ্ঠীবাদি ওয়াতান বা রাষ্ট্র পরিবর্তন হয় ভাঙা গড়া হয়, যা স্থায়ী নয়। দয়াময় আল্লাহতাআলার সৃষ্ট প্রকৃতিকভাবে সারা দুনিয়া একটা ওয়াতান এবং সমগ্র মানবমন্ডলীর জন্য।

ঈমানী ওয়াতান ঈমানী রাজধানী মদীনা মুনাওয়ারা অন্য কিছুর সাথে তুলনীয় নয়। ইসরাইলও একটি খুনী অবৈধ ওয়াতান, তাই বলে সেটা ঈমানের অংশ হবে নাকি? নাউজুবিল্লাহ।

ঈমানিয়াত ও ইনসানিয়াতের দৃষ্টি ও বিচারে সব বর্ডারই অবৈধ ও কুফর- জুলুম- মুলুকিয়তের কাঠামো। বর্ডার জীবন ও সম্পদের মুক্ত প্রবাহ রূদ্ধ করে জীবন ধ্বংসাত্মক বৈষম্য ও বহুমূখী সংকট সৃষ্টি করে।

আমাদের মহান মকবুল সাহাবায়ে কেরাম রাদিআল্লাহু আনহুম সব বর্ডার ভেংগে কলেমার অখণ্ড দুনিয়া গড়ার সাধনা করেছেন এবং অর্ধ পৃথিবী করতে সক্ষম হয়েছেন, যা আবার আমরা ভেঙ্গে দিয়ে বাতিলের গ্রাসে বন্দী হয়ে গেছি।

=== আল্লামা ইমাম হায়াত
(বস্তুর উর্ধ্বে মানবসত্তার প্রবক্তা ও বিশ্ব সুন্নী আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা এবং বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লবের প্রবর্তক)

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

মুসলিম মিল্লাতের মহান জাতীয় শহীদ দিবস উপলক্ষে ওয়ার্ল্ড সুন্নী মুভমেন্টের সমাবেশ
মহররম ঈমানী শোক ও ঈমানী শপথের মাস, আনন্দ উদযাপনের নয় – আল্লামা ইমাম হায়াত
করোনায় সারাদেশে আরও ৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৯৯৮
বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
পেপসির সঙ্গে বিষ খাইয়ে খুন, যুবকের যাবজ্জীবন
চাল আমদানির সুযোগ পাচ্ছে ১২৫ প্রতিষ্ঠান
এশিয়ান টিভির ফেনী জেলা প্রতিনিধি হলেন সাংবাদিক সোহাগ
প্রধানমন্ত্রী সন্তানদের সাথে পদ্মা সেতুর সৌন্দর্য উপভোগ