২৮শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

‘জয় হিন্দ’ স্লোগান দেয়ায় রাবি উপাচার্যকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি

রাবি প্রতিনিধি:

‘অখণ্ড ভারতের জয়ধ্বনি’ দেয়ায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী শিক্ষকদের  সাদা দল। একই সঙ্গে এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে তারা।

রবিবার সাদা দলের ভারপ্রাপ্ত আহব্বায়ক অধ্যাপক ড. মোহা. এনামুল হক স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, এ ধৃষ্টতা রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল। এর মধ্যে দিয়ে তিনি (উপাচার্য) তার পদের চরম অবমাননা ঘটিয়েছেন এবং ওই পদে থাকার নৈতিক অধিকার হারিয়েছেন। সুতরাং অবিলম্বে তাকে জাতির সামনে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানাই। সেই সঙ্গে আইনের আওতায় এনে রাষ্ট্রবিরোধী কর্মকান্ডের জন্য তার যথাযথ শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আমরা অবাক হয়ে লক্ষ্য করছি, বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন উপাচার্য কীভাবে আধিপত্যবাদী একটি দেশের জয়ধ্বনি দিতে পারেন! এটা দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের জন্য চরম অবমাননাকর। এর মাধ্যমে প্রমাণিত হয় তিনি বাংলাদেশের স্বতন্ত্র অস্তিত্ব এবং রাষ্ট্রীয় সত্ত্বাবিরোধী ব্রাহ্মণ্যবাদী ষড়যন্ত্রকারীদের সঙ্গে মিলে দেশবিরোধী চক্রান্তে লিপ্ত হয়েছেন।

এতে আরও বলা হয়, অকণ্ড ভারতের স্লোগান দিয়ে তিনি দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা সাম্রাজ্যবাদী শক্তির গোলাম হিসেবে নিজেকে উপস্থাপন করেছেন। তিনি ক্ষমা না চাইলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার তার বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য শেষে ‘জয় হিন্দ’ স্লোগান দেন রাবি উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান। বক্তব্যের শেষে তিনি ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগানের পর ‘জয় হিন্দ’ স্লোগান দেন।#

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

বাড়ছে করোনা আসছে কঠোর নির্দেশনা!
মাত্র কয়েক ঘণ্টা পর সাধারণের জন্য উন্মুক্ত হবে পদ্মা সেতু
পদ্মা সেতু সাঁতরে মঞ্চে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলল কিশোরী
মাদারীপুর শিবচরের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী
টোল দিয়ে পদ্মা সেতু পার হলেন প্রধানমন্ত্রী
২ পরিবর্তন নিয়ে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
‘পদ্মা সেতু’দেশপ্রেমিক জনগণের আস্থা ও সমর্থনের ফলেই আজকে উন্নয়ন : প্রধানমন্ত্রী
রাত পোহালেই স্বপ্নের মাহেন্দ্রক্ষণ