২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিল্পাঞ্চল গড়বেন, শিল্প উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা করবেন: প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক:

ব্যবসায়ীদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আপনারা শিল্পাঞ্চল গড়ে তুলবেন, শিল্প উন্নয়ন করবেন সঙ্গে সঙ্গে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও পরিবেশ সংরক্ষণের বিষয়গুলোর দিকে বিশেষভাবে দৃষ্টি দিয়ে শুরু থেকেই বর্জ্য ব্যবস্থাপনার ব্যবস্থাটা করবেন।

রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে রফতানি বাণিজ্যে অবদানের জন্য সেরা রফতানিকারকদের ট্রফি প্রদানের অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) যৌথ উদ্যোগে এই ট্রফি প্রদান অনুষ্ঠান হয়।

দেশের রফতানি বাণিজ্য উৎসাহিত করার পাশাপাশি সুষ্ঠু প্রতিযোগিতার পরিবেশ তৈরির লক্ষ্যে সরকারের পক্ষ থেকে প্রতিবছর ব্যবসায়ীদের রফতানি ট্রফি প্রদান করা হয়। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে রফতানি বাণিজ্যে অবদানের জন্য সেরা ৬৬ রফতানিকারককে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ট্রফি তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী। জাতীয় রফতানি ট্রফি নীতিমালা অনুযায়ী মোট ২৮টি ক্যাটাগরিতে পদক দেয়া হয়।

বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ট্রফিপ্রাপ্তদের হাতে ট্রফি তুলে দেয়া শেষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি একটি অনুরোধ করব, আপনাদের ব্যবসায়ীদের সকলকে। শিল্পাঞ্চল আপনারা গড়ে তুলবেন, শিল্প উন্নয়ন করবেন। সঙ্গে সঙ্গে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পরিবেশ সংরক্ষণ- এই বিষয়টার দিকে বিশেষভাবে দৃষ্টি দিতে হবে। বর্জ্য ব্যবস্থাপনাটা শুরু থেকেই করতে হবে।

তিনি বলেন, বর্জ্য দুই ধরনের হয়ে থাকে। খুব হার্ড, যেটা একেবারে কেমিক্যাল বর্জ্য অথবা সলিড ওয়েস্ট বা অন্যান্য লিকুইড ওয়েস্ট। এসবের একটা ব্যবস্থাপনা যদি শুরু থেকেই করেন যেটা আমাদের পরিবেশ রক্ষায় অত্যন্ত সহজ হবে এবং দেশের জন্য কল্যাণকর হবে মানুষের জন্যও কল্যাণকর হবে। সেই দিকে বিশেষভাবে দৃষ্টি দেয়া।

এ সময় ব্যবসায়ীদের প্রতিটি শিল্পাঞ্চল এলাকায় জলাধার রাখার অনুরোধ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, প্রতিটি জায়গায় একটা জলাধার রাখা। সেই জলাধারগুলোতে যেন বৃষ্টির পানি সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা যায়। বৃষ্টির পানি যেন এই জলাধারে সঞ্চিত হয়, যাতে আগুন লাগলে বা দুর্ঘটনা ঘটলে সেই পানি ব্যবহার করা যায়। আর একটা জলাধার থাকলে সেখানকার পরিবেশটাও ভালো থাকে।

শেখ হাসিনা বলেন, পাশাপাশি ব্যাপকভাবে বৃক্ষরোপণ করা। এটা আমাদের পরিবেশের জন্য একান্তভাবে দরকার। আমার এই অনুরোধটা আমি আপনাদের কাছে রেখে গেলাম।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি তোফায়েল আহমেদ, মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. মফিজুল ইসলাম, বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) ভাইস চেয়ারম্যান বেগম ফাতিমা ইয়াসমিন।

(Visited ১২ times, ১ visits today)

আরও পড়ুন

হযরত খাজাবাবা (রঃ) ও জামে আওলিয়া কেরামের পথ পূণরুদ্ধার সম্মেলন অনুষ্ঠিত
টাটা পাওয়ার ডিডিএল ও ব্লকনটসের মধ্যে চুক্তি
ওমেন্স ইরার সবচেয়ে বড় বিজনেস সামিট অনুষ্ঠিত
মহান জাতীয় শহীদ দিবস শাহাদাতে কারবালা দিবসে ফেনীতে র‍্যালী
মুসলিম মিল্লাতের মহান জাতীয় শহীদ দিবস উপলক্ষে ওয়ার্ল্ড সুন্নী মুভমেন্টের সমাবেশ
যে কোন ব্রান্ডের মোবাইল ক্রয়ে পাচ্ছেন আজীবন সার্ভিস ওয়ারেন্টি
মহররম ঈমানী শোক ও ঈমানী শপথের মাস, আনন্দ উদযাপনের নয় – আল্লামা ইমাম হায়াত
আমেরিকা থেকে বিনিয়োগ পেল ‘অন দ্য ওয়ে’