২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উদযাপনে

আগামী বছরে মেট্রোরেলের উদ্বোধন

নির্ধারিত সময়ের আড়াই বছর আগেই চালু হবে মেট্রোরেল। স্বাধীনতার ৫০ বছর (সুবর্ণজয়ন্তী) পূর্তি উদযাপন বর্ষের ১৬ ডিসেম্বর অর্থাৎ আগামী বছরের বিজয় দিবসে মেট্রোরেল আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তরে সরকারি দলের অসীম কুমার উকিলের প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ পরিকল্পনার কথা জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপিত হয়।

মন্ত্রী জানান, উত্তরা-মতিঝিল মেট্রোরেল কমলাপুর পর্যন্ত বর্ধিত (১.১৬ কিমি) করতে সোশ্যাল সার্ভে চলছে। মেট্রোরেলের চলমান কাজের অগ্রগতি সম্পর্কে মন্ত্রী জানান, দেশের প্রথম উড়াল মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজ পুরোদমে এগিয়ে চলছে। ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত সার্বিক গড় অগ্রগতি ৪০ দশমিক ৩৬ শতাংশ। এর মধ্যে উত্তরা হতে আগারগাঁও অংশের পূর্তকাজের অগ্রগতি ৬৭ দশমিক ৯৭ শতাংশ। আগারগাঁও হতে মতিঝিল অংশের পূর্ত কাজের অগ্রগতি ৩৫ দশমিক ৯৯ শতাংশ। ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল সিস্টেম এবং রোলিং স্টক (রেলকোচ) ও ডিপো ইকুইপমেন্ট সংগ্রহ কাজের সমন্বিত অগ্রগতি ২৫ দশমিক ২৫ শতাংশ।

সরকারি দলের সদস্য আলী আজমের এক প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহন জানান, সড়ক ও জনপদ বিভাগের আওতায় দেশে মোট তিন হাজার ৯০৬ দশমিক শূন্য ৩ কিলোমিটার জাতীয় মহাসড়ক এবং চার হাজার ৭৬৬ দশমিক ৯১ কিলোমিটার আঞ্চলিক এবং ১৩ হাজার ৪২৩ দশমিক ৩৬ কিলোমিটার জেলা মহাসড়ক রয়েছে।

তিনি বলেন, মহাসড়কে দ্রুতগতির যানবাহনের সঙ্গে ধীরগতি সম্পন্ন ছোট যানবাহনের অপ্রত্যাশিত চলাচলের কারণে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে থাকে যা সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে অবহিত। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে ইতোমধ্যে একনেক সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পর্যায়ক্রমে আঞ্চলিক মহাসড়ক এবং জেলা মহাসড়কগুলো চার লেনে উন্নীতকরণের পরিকল্পনা রয়েছে।

আলী আজমের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বিআরটিসির বহরে এক হাজার ৮৩০টি বাস রয়েছে। বর্তমানে দেশে চলাচলকারী বিআরটিসির বাসের সংখ্যা এক হাজার ৩৩৪টি। ঢাকা শহরে ৩১৭ টি বাস চলাচল করে। এরমধ্যে আগের ছিল ২১৭টি। বর্তমানে ভারতীয় লাইন অফ ক্রেডিটের ৬০০ বাসের মধ্যে ১০০টি বাস আগের বহরের সঙ্গে যুক্ত হয়ে যাত্রী সেবা প্রধান করছে।

শহীদুজ্জামান সরকারের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র/ছাত্রীদের যাতায়াতের জন্য প্রধানমন্ত্রী বিআরটিসির এ পর্যন্ত ৫২টি বাস অনুদান হিসেবে বরাদ্দ দিয়েছেন। তাছাড়া বিআরটিসির নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় স্টাফ বাস হিসেবে দেশের ১৫ জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১৭৫টি বাস ছাত্র/ছাত্রীদের যাতায়াতের জন্য পরিচালিত হচ্ছে।

শাহে আলমের এক প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ফরিদপুর-বরিশাল মহাসড়ককে চারলেনে উন্নীত করতে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) অর্থায়নের প্রাথমিক সম্মতি দিয়েছে। বর্তমান নকশা মূল্যায়নের কাজ চলছে। এছাড়াও ফরিদপুর-ভাঙ্গা-বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়ককে চার লেনে উন্নীত করতে ভূমি অধিগ্রহণের কার্যক্রম শুরু হয়েছে বলেও মন্ত্রী জানান।

সংরক্ষিত মহিলা আসনের সদস্য রত্না আহমেদের প্রশ্নের জবাবে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেসা সংসদকে জানান, বাংলাদেশ শিশু একাডেমি ইউনিসেফের আর্থিক ও কারিগরি সহায়তায় ২০১৮-২০২০ মেয়াদে শিশুর বিকাশে প্রারম্ভিক শিক্ষা (৩য় পর্যায়) প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। প্রকল্পের মেয়াদে গাজীপুর, চট্টগ্রাম, বরিশাল, খুলনা ও রংপুর সিটি করপোরেশনের বস্তি, মৌলভীবাজার জেলার চা-বাগান, ৯টি কেন্দ্রীয় কারাগার, ফরিদপুর শহর, যৌনপল্লী, চর, হাওর এলাকায় বসবাসরত সুবিধাবঞ্চিত প্রায় ৩১ হাজার ৪০০ জন শিশুকে শিশু বিকাশ উপযোগী শিক্ষা প্রদানসহ বস্তি ও চা-বাগান এলাকার এক হাজার ৬০০ জন শিশুকে ডে-কেয়ার সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে।

এম এ মতিনের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, ভবিষ্যতে পর্যায়ক্রমে দেশের সব উপজেলায় শিশু একাডেমির শাখা অফিস প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা রয়েছে।

সংরক্ষিত মহিলা আসনের সদস্য আদিবা আনজুম মিতার প্রশ্নের জবাবে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী সংসদকে জানান, পাট দিয়ে পলিথিনের প্রসারে একটি পাইলট প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এই প্রকল্পে দৈনিক এক লাখ পিস সোনালী ব্যাগ উৎপাদনের জন্য যন্ত্রপাতি ক্রয় ও স্থাপনের কাজ চলমান রয়েছে। এই প্রকল্প শেষ হওয়ার পরেই বাণিজ্যিক ভিত্তিতে সোনালী ব্যাগ উৎপাদন শুরু হবে।

আলী আজমের এক প্রশ্নের জবাবে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী জানান, চলতি অর্থ বছরে দেশে পাট উৎপাদন হয়েছে ৮৪ লাখ ৫৫ হাজার বেল। বর্তমানে সরাসরি পাট রফতানি করা হয় ভারত, পাকিস্তান, চীন, নেপাল, আইভরিকোস্ট, যুক্তরাজ্য, জিবুতি, ব্রাজিল, ভিয়েতনাম, ফিলিপাইন, তিউনিশিয়া, রাশিয়া, ইথিওপিয়া এবং বেলজিয়ামে।

সংরক্ষিত আসনের মোসা. তাহমিনা বেগমের এক প্রশ্নের জবাবে পাটমন্ত্রী জানান, বিজিএমসির নিয়ন্ত্রণাধীন মিলগুলোতে মজুত করা পাটপণ্য বিক্রি হলে, সরকারি মিলে পাট দেওয়া ক্ষুদ্র পাট ব্যবসায়ীদের ২০১৭, ২০১৮ ও ২০১৯ সালের বকেয়া টাকা ২০২০ সালের জুনের মধ্যে দেওয়া সম্ভব হবে।

বেনজীর আহমেদের এক প্রশ্নের জবাবে পাটমন্ত্রী জানান, দেশের সরকারি পাটকলের সংখ্যা ২৩টি। এরমধ্যে একটি পাটকল মামলাজনিত কারণে বন্ধ আছে। হস্তান্তর চুক্তির শর্ত ভঙ্গের কারণে সরকার ৬ টি পাটকল পুনরায় গ্রহণ করেছে। এই ৬টির মধ্যে আবার ৫টির বিষয়ে আদালতের স্থিতিবস্থা রয়েছে। অপরটি নিয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। অন্য কোনও পাটকল বন্ধ না থাকায় নতুন করে পাটকল চালুর পরিকল্পনা সরকারের নেই।

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

মাত্র কয়েক ঘণ্টা পর সাধারণের জন্য উন্মুক্ত হবে পদ্মা সেতু
পদ্মা সেতু সাঁতরে মঞ্চে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলল কিশোরী
মাদারীপুর শিবচরের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী
টোল দিয়ে পদ্মা সেতু পার হলেন প্রধানমন্ত্রী
২ পরিবর্তন নিয়ে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
‘পদ্মা সেতু’দেশপ্রেমিক জনগণের আস্থা ও সমর্থনের ফলেই আজকে উন্নয়ন : প্রধানমন্ত্রী
রাত পোহালেই স্বপ্নের মাহেন্দ্রক্ষণ
পদ্মা সেতু উদ্বোধনে দাওয়াত পেলেন প্রধান বিচারপতিসহ সব বিচারপতি