১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ |

আল আরবের জেদ্দায় আবারো কারফিউয়ের সময় বৃদ্ধি

আল আরবের জেদ্দায় আবারো কারফিউয়ের সময় বৃদ্ধি। সেই সাথে সেখানে ফের মসজিদে নামাজ বন্ধ করা হয়েছে। তবে নামাজ বন্ধ হলেও চালু থাকছে আজান। আল আরব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জেদ্দা অঞ্চলে আবারও বাড়লো কারফিউর সময়। কারফিউ শুরু হবে বিকেল তিনটায়। শেষ হবে ভোর ছয়টায়।
চলমান করোনা সঙ্কটে সমগ্র আল আরবে চলছিল কারফিউ শিথিলের দ্বিতীয় ধাপ।

এই ধাপে দিনভর অফিস, আদালত ব্যবসায়িক কর্মযজ্ঞ চলার পর, রাতের ৮ টা থেকে সকাল ৬ টা পর্যন্ত চলছিল কারফিউ।

আবার পরিস্থিতি বিবেচনাতে জেদ্দার কারফিউর সময় এবং মানুষের চলাচল সীমাবদ্ধ করা হলো

সার্বিকভাবে আল আরব জেদ্দাতে কি কি নিয়ম পরিবর্তিত ।নিম্ন উল্লেখ করা হলো

রাত ৮টা পরিবর্তে বিকাল ৩ টা থেকে কারফিউ শুরু হয়ে সকাল ৬টায় শেষ হবে।
মসজিদে শুধু আজান হবে। নামাজ পড়া বন্ধ থাকবে।
সরকারী এবং বেসরকারী অফিস,আদালত সমূহ বন্ধ থাকবে
৪/ ৫ জনের বেশী জমায়েত হওয়া একেবারেই নিষিদ্ধ।
খাবার হোটেল আবার বন্ধ করা হল। শুধুমাত্র পার্সেল/ টেকঅ্যাওয়ে নেওয়া যাবে।
অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচল এবং ট্রেন, বাস চলাচল করবে।
কারফিউ শিথিল এর সময় অর্থাৎ সকাল ছয়টা থেকে বিকেল তিনটে পর্যন্ত জেদ্দা থেকে বের হওয়া যাবে এবং জেদ্দায় প্রবেশ করা যাবে।

পৃর্বে উল্লেখিত অন্যান্য নির্দেশনা সমূহ সময় বলবত থাকবে।তবে জেদ্দার সাথে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট সমূহ চালু থাকবে। আগের মতোই

এই সময় প্যাসেঞ্জারের সাথে থাকা বোর্ডিং পাস অথবা টিকেট প্যাসেঞ্জারের অনুমতি বহন করবে।

গত ২০ মার্চ আল আরবের সকল মসজিদে নামাজ পড়া স্থগিত হয়ে যাবার পর দীর্ঘ ১১ সপ্তাহ পর আজ( ৬ জুন) আল আরবের মসজিদ সমূহে আবার জুম্মার নামাজ অনুষ্ঠিত হল। আবার আজই জেদ্দায় মসজিদে নামাজ আদায় স্থগিত হয়ে গেল।
আগামীকাল ৬ জুন থেকে আগামী ২১ জুন পর্যন্ত ১৫ দিনের এই বিধিনিষেধগুলো কেবলমাত্র জেদ্দার জন্য প্রযোজ্য। তবে প্রয়োজনে আল আরবের যে কোন অঞ্চলেই পরিস্থিতির সাপেক্ষে এই বিধিনিষেধ সমূহ চালু হতে পারে।

(Visited ১২ times, ১ visits today)

আরও পড়ুন

৪ বছর বন্ধ থাকার পর বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক প্রেরণ প্রক্রিয়া শুরু
রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধে জেলেনস্কি যুক্তরাষ্ট্রের সতর্কবার্তা শোনেননি: বাইডেন
নিষিদ্ধ হলো শিয়াদের বির্তকিত ‘লেডি অভ হ্যাভেন’সিনেমা
কলকাতার বাংলাদেশ উপহাইকমিশনের সামনে গুলিতে নিহত ২
নবীকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, নুপুর শর্মার বিরুদ্ধে মামলা
চাদে স্বর্ণখনি শ্রমিকদের সংঘর্ষে নিহত ১০০
তিস্তা নদীর পানিবণ্টন চুক্তি না হওয়া লজ্জাজনক : পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ছে মাঙ্কিপক্স