১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

ফরিদপুরে ২ হাজার খেজুর গাছের বীজ রোপন করলেন বৃক্ষ প্রেমিক স্কুল শিক্ষক

দেশী খেজুর গাছ ও খেজুরের জন্য এক সময়কার বিখ্যাত জেলা ফরিদপুর থেকে যখন দেশী খেজুরগাছ প্রায় বিলুপ্তি হতে চলেছে ঠিক সেই সময় ফরিদপুরে ২ হাজার দেশী খেজুরের বীজ রোপন করলেন ফরিদপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের রসায়ন শিক্ষক মোঃ নুরুল ইসলাম (ফরিদপুর বাসীর প্রিয় নুরুল স্যার)।

প্রতি মাসে একটি ভালো কাজ করার সেই নুরুল স্যার গতকাল শনিবার ও আজ রবিবার দুইদিনে ফরিদপুর শহরের রোড় ডিভাইডারে এসব দেশী খেজুরের বীজ রোপন করেন। তিনি শহরের টেপাখোলা রেল ক্রসিং এর পশ্চিম পাড় মুজব সড়ক থেকে শুরু করে পুলিশ লাইন, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়,পৌর ভবন, জনতা ব্যাংকের মোড়, আলীপুর ,পুরাতন বাসষ্টান্ড হয়ে পশ্চিম খাবাস পুরের প্রধান সড়কের রোড ডিভাডার গুলোর মাঝ খানে খেজুরের বীজ রোপন করেন।

শিক্ষক মোঃ নুরুল ইসলাম জানান, খেজুর গুড়ের জন্য প্রসিদ্ধ আমাদের ফরিদপুর জেলা কিন্তু কালক্রমে ফরিদপুর থেকে খেজুরগাছ হারিয়ে যাচ্ছে। তিনি জানান,প্রধানত তিনটি কারনে আমার এই খেজুরের বীজ রোপন করা,এক.ফরিদপুরের ঐতিহ্যকে ধরে রাখা। দুই. শহরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করা তিন. পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করা।

তিনি বলেন, শুরু করেছি রোড ভিাইডারের মধ্যে বীজ রোপনের মাধ্যমে, বীজ থেকে চারা গজালে শহরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে ।আগামি কিছুদিনের মধ্যে সড়কের পাশেও দেশী খেজুরের বীজ রোপন করা হবে।

ফরিদপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের রসায়ন শিক্ষক মোঃ নুরুল ইসলাম যিনি প্রতি মাসে একটি ভালো কাজ করে থাকেন যার সুনাম মানুষের মুখে মুখে। এইসব ভালো কাজের অংশ হিসেবে শিক্ষক মোঃ নুরুল ইসলাম ফরিদপুরের পদ্মাপাড়ে “দয়া করে নদীতে কেউ প্লাস্টিক বর্জ্য ফেলবেন না,নদী না বাচঁলে আমরা বাচবো নাঁ,নদী বাঁচলে আমরা বাঁচবো” এই শ্লোগান সম্বলিত দুটি স্থায়ী বিল বোর্ড স্থাপন করেছেন।
মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ও নদীর দূষণ রক্ষার্থে তিনি ফরিদপুরের ধলার মোড় পদ্মানদীর পাড়ে ১টি ও ভাজন ডাঙ্গা ভুঁইয়া বাড়ীর ঘাট পদ্মানদীর পাড়ে ১টি বিলবোর্ড স্থাপন করেছেন। দেশে করোনার প্রভাবে যখন মানুষ কর্মহীন হয়ে পরে তখন তিনি ফরিদপুর শহরের দরিদ্র দিনমুজুর,রিক্সা চালক, চা বিক্রেতা,নরসুন্দর ও খেটে খাওয়া প্রতিবেশীদের বাড়ীতে বাড়ীতে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন।
তিনি রিক্সা চালকদের মধ্যে সকালের নান্তা বিতরণ করেছেন, রিক্সা চালক ও ভিক্ষুক মিলে অর্ধশত ব্যাক্তিকে দুপুরে চাইনিজ খাইয়েছেন , দুঃস্থ্যদের মাঝে সেমাই, চিনি ও গুড়া দুধ বিতরণ করেছেন, মাদ্রাসায় ছাত্রদের সহযোগিতা করা, এক বৃদ্ধার ঈদের যাবতীয় খরচ বহন করেছেন, শহরে রোপন করেছেন ২০টি কৃষ্ণচূড়া ও রাধাচূড়ার চাড়া এছাড়া শহরের বিভিন্ন জায়গায় রোপন করেছেন ১ হাজার ১শতটি তালের বীজ।

শিক্ষক নুরুল ইসলাম আরো জানান, এবছর সকল ভালো কাজ মুজিব বর্ষ উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করেছি। তিনি বলেন, প্রতিমাসে একটি করে ভালো কাজ করবেন।
শিক্ষক নুরুল ইসলাম ফরিদপুর শহরের কমলাপুর লালের মোড় এলাকার বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা ফকির আব্দুর রহমানের ছেলে। তিনি বিবাহিত এবং এক ছেলে ও এক মেয়ের বাবা। নুরুল ইসলাম জানান, অনেক দিনের স্বপ্ন সমাজের জন্য কিছু করা। তাই প্রতিমাসে অন্তত একটি ভালো কাজ করার চেষ্টা করি।

(Visited ১৫ times, ১ visits today)

আরও পড়ুন

হযরত খাজাবাবা (রঃ) ও জামে আওলিয়া কেরামের পথ পূণরুদ্ধার সম্মেলন অনুষ্ঠিত
বীর মুক্তিযুদ্ধা আব্দুল আলিম এর সহধর্মীনি নুরজাহান বেগম আর নেই
ফজলে রাব্বীর আসনে নৌকার হাল ধরতে চান যারা
মহান জাতীয় শহীদ দিবস শাহাদাতে কারবালা দিবসে ফেনীতে র‍্যালী
এমপির বিরুদ্ধে উপজেলা চেয়ারম্যানকে কিল-ঘুষির অভিযোগ
বঙ্গবন্ধুর সমাধীস্থলে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের শ্রদ্ধাঞ্জলী
অসহায় মানুষের মাঝে মাংস বিতরণ করল ‘জীবন আলো’
নোয়াখালীতে প্রবাসীকে মারধর ও লুটপাটের অভিযোগ