২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

অদম‌্য জীবনযু‌দ্ধে দৃ‌ষ্টিহীন শওকত, হ‌তে চান মান‌বিক মানুষ

চোখের আলো নেই, সাহায‌্য করার মত বন্ধু বান্ধব ছাড়া তেমন কেউ নেই, তো কি হ‌য়ে‌ছে? অদম‌্য ইচ্ছাশ‌ক্তি তো আ‌ছে। জীবনযু‌দ্ধে এতটুকু দমাতে পা‌রে‌নি যা‌কে, একাই জীবনযু‌দ্ধে ল‌ড়ে চল‌ছেন, এম‌নই এক দৃ‌ষ্টিহীন মেধাবী লড়াকু সৈ‌নি‌কের নাম শওকত হোসেন(২৬)। পড়‌ছেন প্রা‌চ্যের অক্স‌ফোর্ড খ‌্যাত ঢাকা বিশ্ব‌বিদ‌্যাল‌য়ে।

চো‌খের আ‌লো না থাক‌লেও মান‌বিক শিক্ষার্থী হি‌সে‌বে আ‌লো ছড়া‌চ্ছেন তি‌নি। ‌শিক্ষার্থী‌দের অ‌ধিকার আদা‌য়েও সোচ্চার। দৃ‌ষ্টিহীন ব‌লে থে‌মে থা‌কেন‌নি। ডাকসুর সর্ব‌শেষ নির্বাচ‌নেও তি‌নি এ‌জিএস প‌দে লড়াই ক‌রেন। একজন মেধাবী ছাত্র, বিনয়ী মানুষ আর ভা‌লো বন্ধু হি‌সে‌বেও ঢা‌বি ক‌্যাম্পা‌সে সুখ‌্যা‌তি র‌য়ে‌ছে তার। দৃ‌ষ্টিহীনতার কার‌ণে জীব‌নে পরা‌জিত হ‌তে চান না শওকত। সব বাধা বিপ‌ত্তি পে‌রি‌য়ে যে কো‌নো মূ‌ল্যে জীব‌নের মন‌জিল মকসু‌দে পৌছ‌া‌তে চান তি‌নি।

দৃ‌ষ্টি ছাড়াই বিদ‌্যা, বুদ্ধি আর মান‌বিকতা দি‌য়ে তি‌নি সমাজ‌ বদ‌লে দি‌তে চান, ছড়া‌তে চান আ‌লো। জয় কর‌তে চান মানু‌ষের হ্রদয়। হ‌তে চান আ‌লো‌কিত একজন মান‌বিক মানুষ।

দৃ‌ষ্টিহীন শওক‌তের বা‌ড়ি কুমিল্লা জেলার চানপুর গ্রামে। এক সম্ভ্রান্ত দ‌রিদ্র মুস‌লিম প‌রিবা‌রে জন্ম তার। বাবা আবুল কাশেম (৭০) বাস ট্রাক এর নির্মাণ কাজ করতেন। মাতা মনোয়ারা বেগম(৬৫) একজন গৃহিণী। ৩ ভাই ১ বোন এর মধ্যে শওকত হোসেন তৃতীয়।

‌পিতার টানাটা‌নির সংসা‌রে মাত্র ৪ বছর বয়সে চোখের সমস্যা ধরা পড়ে শওক‌তের। চি‌কিৎসা করার মত অবস্থা ছিল না তার প‌রিবা‌রের। এই অবস্থায় তা‌কে কুমিল্লার ব্লাইন্ড স্কুলে ভর্তি করা হয়। ধী‌রে ধী‌রে শিশু শওক‌তের চো‌খের আ‌লো নি‌ভে যে‌তে থা‌কে। ক্লাস থ্রি থেকে সমস‌্যা প্রকট হ‌তে থা‌কে তার। অপ‌রের সাহায্য ছাড়া পড়তে পার‌তো না সে। কেউ পড়া পড়ি‌য়ে দিলে শুনে শুনে পরবর্তী‌তে টেপরেকর্ড এর মাধ‌্যমে পড়া শিখা হ‌তো। আর পরীক্ষা দিতেন অ‌ন্যের সাহা‌য্যে।

পরীক্ষার হ‌লে শওকত বলে দিতেন, লি‌খে দি‌তেন অন‌্য কেউ। এইভাবে নি‌জের স‌ঙ্গে লড়াই ক‌রে কৃ‌তি‌ত্বের স‌ঙ্গে এসএসসি পাশ ক‌রে চমক দেখান দৃ‌ষ্টিহীন শওকত। মানবিকে জিপিএ (৪,৮১) পান তি‌নি। এ‌তে উজ্জ্বল ভ‌বিষ‌্যতের জন‌্য আরও উৎসা‌হিত হন শওকত।

দ্বাদশ শ্রেনীতে ভর্তি হন ব্রাহ্মানবাড়ীয়া সরকারি কলেজে মানবিক শাখাই। ক‌লে‌জে পড়া রেকর্ড করে অ‌নেক কষ্ট ক‌রে পড়তে হতো তার। বন্ধুরা মিলে রেকর্ড করে দিতো, কিন্তু এই রেকর্ড করে দেওয়াটা ছিল অনেকের কাছে কিছুটা বিরক্তির। এ কার‌ণে দি‌নের পড়া‌শোনা দি‌নেই শেষ কর‌তে পার‌তো না, সময় লে‌গে যেতো। সেটা শেষ করতে অনেক কষ্ট হতো, তাও অদম্য ইচ্ছা শক্তি দিয়ে হলেও শেষ করতো।

এভাবেই শেষ ক‌রেন এইচএসসি (জিপিএ-৩,৯২)। তারপর উচ্চ শিক্ষার জন‌্য হার না মে‌নে লড়াই চা‌লি‌য়ে যান দৃ‌ষ্টিহীন শওকত। অদম্য ইচ্ছা শক্তিই তাকে ঢাকা বিশ্ব‌বিদ‌্যাল‌য়ে ভ‌র্তির সুযোগ করে দেয়।

এই দুসময়ের স্মৃ‌তিচারণ ক‌রে শওকত ব‌লেন, ঢা‌বি‌তে পড়া‌শোনা কর‌ার জন‌্য কৃ‌তিত্ব দি‌তে হয়
বন্ধু পপিকে। যে আমা‌কে প্রতি‌নিয়ত সাহায‌্য ক‌রে‌ছেন। বিশ্ব‌বিদ‌্যাল‌য়ের বন্ধু বান্ধব ভাই বোন‌দের সহায়তায় অ‌নেক কষ্ট ক‌রে ‌স্কলারশিপ পে‌য়ে অনার্স শেষ করেছি। এখন সবার সহ‌যো‌গিতায় পড়া‌শোনা কর‌ছি মাস্টার‌সে।
তি‌নি ব‌লেন, আ‌মি সবার সহ‌যো‌গিতা চাই, ভা‌লোবাসা চাই। তাহ‌লে আ‌মি সব অসম্ভব‌কে সম্ভব কর‌তে পার‌বো। আ‌মি মান‌বিক মানুষ হ‌য়ে মানু‌ষের জন‌্য কিছু কর‌তে চাই। বি‌শেষ ক‌রে দৃ‌স্টিহীনতাসহ প্রতিবন্ধী‌দের জন‌্য কিছু কর‌তে চাই।

একাই জীবনযু‌দ্ধে ল‌ড়ে যাওয়া দৃ‌ষ্টিহীন শওকত হোসেন(২৬) একজন ভা‌লো ক্রিকেটার। চো‌খের আ‌লো ছাড়াই কি‌ক্রেট মা‌ঠে তি‌নি আ‌লো ছ‌ড়ি‌য়ে‌ছেন। ২০১৩ সালে ২৬শে মার্চ উপলক্ষে একটি ক্রিকেট প্রী‌তি ম‌্যাচ অনু‌ষ্ঠিত হয়। খেলায় তি‌নি ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বা‌চিত হন। তি‌নি দাবা খেলায়ও পটু। পা‌রেন সাইকেল চালাতেও। ত‌বে তা‌কে বই প্রেমিক হি‌সে‌বেও জা‌নে বন্ধুরা।

শওকত হো‌সেনের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন,, ক‌বিতা, গল্প উপন‌্যাস কার পড়‌তে ভা‌লো না লা‌গে। বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বই- চাদের পাহার, শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় এর উপন্যাস- চরিত্রবান, বড়দিদি আরও কত নামই আ‌ছে।

দেশ ও জা‌তির জন‌্য নি‌জে‌কে উজাড় ক‌রে দি‌তে চাই শওকত। সেজন‌্য সবার দোয়া ও ভালবাসা চে‌য়ে‌ছেন তিনি।

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

ককটেল বিস্ফোরণ কাদের মির্জার সাজানো নাটকঃ কোম্পানীগঞ্জ আ’লীগ
এবার কাদের মির্জার ছোট ভাইয়ের নেতৃত্বে বাস ভাংচুর
রফিকুল ইসলাম মাদানীকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ
সেতুমন্ত্রীর পক্ষে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ বিতরণ
করোনার স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে মাইক হাতে ছুটছেন বন্দর ইউএনও
রুপসী বাংলা ব্লাড ডোনেট ক্লাবের ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং নির্নয় ক্যাম্প
কাদের মির্জার ‘নেতৃত্বে’ হোটেল ভাংচুর, আহত ৬
সেনা কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর জন্ম দিবস ও জাতীয় শিশুদিবস উদযাপিত