২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন এর পক্ষ থেকে

ঈদে মেরাজ শরীফ উপলক্ষে রাষ্ট্রীয় ছুটি ঘোষণার দাবি

বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন ও বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লব এর মহাসচিব আল্লামা শেখ রায়হান রাহবার আজ রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক এ তাঁর ভেরিফাইড আইডি থেকে ঈদে মেরাজ শরীফ উপলক্ষে রাষ্ট্রীয় ছুটি ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন।

মহাসচিব রায়হান রাহবার এর আইডিতে পোষ্টকৃত আবেদনটি নিচে হুবহু তুলে ধরা হয়েছে –

দয়াময় আল্লাহতাআলা তাঁর প্রিয়তম মহান রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে প্রত্যক্ষ সাক্ষাত প্রদানের মাধ্যমে সৃষ্টির নিকট স্বয়ং দয়াময় আল্লাহতাআলার প্রথম প্রত্যক্ষ প্রকাশের অতুলনীয় মহাউপলক্ষ, সমগ্র সৃষ্টির জন্য অসীম করূণার উৎস, মহাগৌরবময় মহান ঈদে মেরাজ শরীফ উপলক্ষে আজ রাতে
রাষ্ট্রীয় ছুটি ঘোষণার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট আবেদন জানানো হয়।

“সমগ্র মানবমন্ডলীর জন্য দয়াময় আল্লাহতাআলার সম্পর্ক ও সংযোগের মূল ঠিকানা, আল্লাহতাআলার পক্ষ থেকে সকল গুণ-জ্ঞান- আলো ও দিশার মূল কেন্দ্র ও দোজাহানে জীবনের সর্ব কল্যাণের মূল উৎস মহান প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে দয়াময় আল্লাহতাআলা স্থান ও কালের উর্ধ্বে তাঁর পরম সান্নিধ্যে দূরত্ত্বহীন সর্বোচ্চ নৈকট্যে উপনীত করে তাঁর প্রত্যক্ষ সাক্ষাত প্রদানের মাধ্যমে সৃষ্টির নিকট আল্লাহতাআলার পবিত্র মহাসত্ত্বার প্রথম প্রত্যক্ষ অতুলনীয় প্রকাশ মহিমাময় মেরাজ শরীফ।

সমগ্র সৃষ্টির জন্য অসীম করূণার উৎস মহাগৌরবময় মহান মেরাজ শরীফের সাথে দয়াময় আল্লাহতাআলা ও তাঁর প্রিয় হাবীব সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে ঈমান সম্মতভাবে বুঝতে ও চিনতে পারা এবং নিজের জীবনের উপলব্ধি ও সত্যপ্রাপ্তি অবিচ্ছেদ্যভাবে জড়িত।

দয়াময় আল্লাহতাআলা ও তাঁর মহান রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের এ মহামিলন মানবজ্ঞানের অতীত অচিন্তনীয় এ প্রত্যক্ষ দর্শন সকল সৃষ্টি ও সমগ্র মানবমন্ডলী এবং বিশেষভাবে সকল মুমিনের জন্য অসীম রহমত, অবর্ণনীয় দান, অতুলনীয় গৌরব, অনন্ত খুশি ও সর্বোচ্চ শোকরিয়ার বিষয়।

আমরা মুমিনদের জন্য জীবনের পরম পাওয়া পরম উৎসব এ মহান মেরাজ শরীফ। মহান প্রিয়নবীর এ প্রত্যক্ষ সাক্ষাত আমাদের সবারই পরোক্ষ সাক্ষাত। আমরা মুমিনগণ এবং সমগ্র সৃষ্টি সবাই এ মহান মেরাজ শরীফে জড়িত এবং মহান মেরাজ শরীফের রহমত, বরকত ও আলোকধারায় যুক্ত।

পবিত্র মেরাজের শিক্ষা অর্থাৎ প্রিয়নবী যে আল্লাহতাআলার সাথে প্রত্যক্ষ যুক্ত, একমাত্র প্রিয়নবীর মধ্যেই যে আল্লাহতাআলাকে পেতে হবে, প্রিয়নবীর হওয়াই যে আল্লাহতাআলার হয়ে যাওয়া, প্রিয়নবীর প্রেমই যে আল্লাহতাআলার প্রেম ও নৈকট্য সাধনা, মহামহিম পবিত্র আহলে বায়েত-মহামান্য খোলাফায়ে রাশেদীন-মকবুল সাহাবায়ে কেরাম- সত্যের ইমামবৃন্দ-আওলিয়া কেরাম তথা প্রিয়নবীর আপনদের আলোকধারায় সত্যে একাত্ম হয়ে মানবতার কল্যাণ ও মুক্তি সাধনাই যে প্রিয়নবীর প্রেম তা বুঝতে অক্ষমতা তথা ঈমানসম্মত ভাবে প্রিয়নবীকে চিনতে না পারার কারণেই দয়াময় আল্লাহতাআলার সম্পর্ক বুঝতে অক্ষমতা এবং দ্বীন ও জীবন বুঝতে অক্ষমতা তৈরী হয় যার পরিণতিতে ইসলামের ছদ্মবেশে কূফর- জুলুম- সন্ত্রাস- স্বৈরতা তৈরী হয় এবং নানাবিধ বস্তুবাদ জীবনকে গ্রাস করে।

সত্য ও জীবনের উপলব্ধি এবং সকল মিথ্যা-মুর্খতা-আঁধার-বিপর্যয় থেকে সুরক্ষা ও মুক্তির জন্য অতুলনীয় অপরিহার্য্য এ মহান উপলক্ষের মহিমা ও তাৎপর্য্য উপলব্ধির জন্য ও এ মহান উপলক্ষের শোকরিয়া উদ্যাপনের জন্য ২৬শে রজব রাষ্ট্রীয় ছুটি যেমন সহায়ক হবে তেমনি এ মহান উপলক্ষকে সম্মান প্রদর্শন করা হবে।

রাষ্ট্রীয় ছুটি না থাকায় দয়াময় আল্লাহতাআলা ও তাঁর হাবীব সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সাথে আত্মার বন্ধন এ মহান উপলক্ষ উপেক্ষিত হচ্ছে এবং উদ্যাপনে যেমন সমস্যা হচ্ছে তেমনি ঈমানী অস্তিত্ত্বের ধারক এ মহান উপলক্ষের অতিঅপরিহার্য্য তাৎপর্য বিলুপ্ত হয়ে জীবন ও দুনিয়া আঁধারে নিমজ্জিত হচ্ছে।

আমরা বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন সকল পীর মাশায়েখ-ওলামায়ে কেরাম-শিক্ষাবিদ, সকল খানকাহ-মাদ্রাসা-দরবার এবং দুনিয়ার সকল মুমিন ভাইবোন ও আল্লাহতাআলাকে বিশ্বাসী সকল সত্যপ্রিয় মানুষের পক্ষ থেকে ঈমানী প্রাণের দাবী হিসেবে আবেদন জানাচ্ছি, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তিনি ও তাঁর ধর্মীয় অনুভূতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল মহান পিতার পক্ষ থেকে পবিত্র ঈদে মেরাজ শরীফের অতুলনীয় অসীম তাৎপর্যপূর্ণ মহাগুরুত্ত্বপূর্ণ উপলক্ষে রাষ্ট্রীয় ছুটি ঘোষণা করে দয়াময় আল্লাহতাআলা ও তাঁর হাবীব সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের রহমত ও সকল মুমিনের দোয়া লাভে ধন্য হবেন এবং সকল সত্যপ্রিয় মানুষের হৃদয়ের কৃতজ্ঞতাভাজন ইতিহাস হয়ে থাকবেন।

আর যদি ক্ষমতা তথা সুযোগ থাকা সত্ত্বেও না করা হয়, তাহলে আল্লাহতাআলার পরম দয়া ও দান, তাঁর প্রত্যক্ষ নূর ও মহান রেসালাতের মাধ্যমে স্বয়ং তাঁর মহা প্রকাশ, সত্য ও কল্যাণের উৎস মহান ঈদে মেরাজ শরীফের প্রতি অবজ্ঞা প্রকাশ হবে, যার ফলে দুনিয়ায় রহমত ও মুক্তির ধারা রূদ্ধ হবে এবং যা অবশ্যই আখেরাতে আফসোসের কারণ হবে ও সৌভাগ্য হতে বঞ্চিত হতে হবে।

“প্রাণাধিক প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের প্রতি ভালবাসা ও শ্রদ্ধা আল্লাহতাআলার রহমত ও মাগফেরাত লাভের সর্বোচ্চ অবলম্বন, যা আল্লাহতাআলার ক্রোধকেও শান্ত বিগলিত করে রহমত বর্ষণে পরিণত করে”।

============
ইসলামের প্রকৃত ধারার গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি ও একুশে পদকপ্রাপ্ত. বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ আলেমে দ্বীন, ইমামে আহলে সুন্নাত, ওস্তাজুল ওলামা, শায়খুল হাদিস, মুর্শেদে হাক্কানী, ওলীয়ে রাব্বানী
–হজরত আল্লামা সৈয়দ সাইফুর রহমান নিজামী শাহ

=============
ইসলামরে মূল ধারা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতরে প্রকৃত ধারার এ যুগরে পূণরূজ্জীবনকারী এবং বিশ্ব সুন্নী আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লবরে প্রর্বতক
–সৈয়দ আল্লামা ইমাম হায়াত

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

শপিংমল-দোকান খোলার সিদ্ধান্ত
সোমবার থেকে এক সপ্তাহের লকডাউন
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি মোদির
সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি প্রকাশ
ফ্রান্স ফেনী সমিতির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক কাজি জাফর নির্বাচিত
ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ আর নেই 
তথ্য মন্ত্রণালয়ের নাম পরিবর্তন
নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে অব্যাহতি পেলেন ড. ইউনূস