২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে দিনরাত কাজ করছেন ইউএনও শুক্লা সরকার

১জুলাই সারা দেশব্যাপী কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়। কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রথম দিন ভোর ৬ টা থেকে রাত অব্দি অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন বন্দর উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শুক্লা সরকার। অপ্রয়োজনে যেন কেউ বাসা থেকে বের না হয় সেদিকে নজর দিচ্ছেন উপজেলা প্রশাসন। বন্দর উপজেলার ইউএনও শুক্লা সরকার বলেন ” করোনা সংক্রমণ কমাতে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার যে কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে,তা বাস্তবায়নে আমরা বন্ধ পরিকর। ” বন্দরবাসীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন “আপনাদের নিরাপদ রাখার জন্য আমরা কাজ করছি, তাই আপনাদের আন্তরিকতা ও সহযোগীতা কামনা করছি।”

উল্লেখ্য, করোনা সংক্রমণ শুরুর পর থেকেই নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর উপজেলায় এ ভাইরাস প্রতিরোধে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন ইউএনও শুক্লা সরকার।

করোনা মোকাবিলায় তার দূরদর্শী ও বলিষ্ঠ পদক্ষেপের জন্য বর্তমানে বন্দর উপজেলায় করোনা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হয়েছে। করোনাকালে নারায়ণগঞ্জ জেলা আজ অবধি মডেল প্রশাসন হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। বন্দর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা শুক্লা সরকার করোনাযোদ্ধা ও এক জনবান্ধব প্রশাসনিক কর্মকর্তা।

যিনি করোনাকালে বন্দর জনপদের বিপন্ন মানুষকে নিরাপদ রাখতে রাত-দিন বিরামহীন কাজ করে যাচ্ছেন। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে অবিরাম তিনি মানুষের জন্য ছুটে চলেছেন। বন্দর জনপদের মানুষের জীবন নিরাপদ রাখতে শুরু থেকে লকডাউন সফল করতে নিজেই হ্যাণ্ডমাইক নিয়ে প্রচারণা চালিয়েছেন।করোনা পরীক্ষা করার জন্য বন্দরে স্থাপন করেছেন করোনা টেস্ট বুথ। করোনার টিকা নিশ্চিত করতে এবং জনগণের কাছে টিকা সহজলভ্য করতে নিরলসভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

বর্তমান কঠোর লকডাউন এবং কোরবানি ঈদ সামনে রেখে বাজার নিয়ন্ত্রণ ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর দাম স্থিতিশীল রাখার জন্য কাজ করছেন। শিক্ষার্থীদের জীবন নিরাপদ রাখতে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছেন। ঘরবন্দী মানুষকে বাঁচাতে ভ্রাম্যমাণ, কাঁচাবাজার, ফলের বাজার, মাছের বাজারসহ ভ্রাম্যমান হাট নিয়ে গেছেন প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের দোরগোড়ায়। ঘরবন্দী মানুষের জন্য ভ্রাম্যমাণ জরুরী ঔষধ সরবরাহ সহ চিকিৎসা সেবা চালু করেন।নিজে করোনায় আক্রান্ত হয়েও থেমে যাননি।

সুস্থ হয়ে নতুন উদ্দ্যমে লড়াই করে যাচ্ছেন করোনার হাত থেকে বন্দরবাসীকে রক্ষা করার জন্য। করোনার মধ্যেও থেমে নেই উপজেলার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পসহ উপজেলার সার্বিক উন্নয়ন কর্মসূচী বাস্তবায়নে অফিস করছেন সপ্তাহের সাত দিনই। মধ্য রাতেও ছুটে চলছেন জনগনের দরজায়। বন্দরবাসী জানায় শুক্লা সরকারের মত এমন পরিশ্রমী,ত্যাগী, মানবিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পেয়ে তারা অত্যন্ত খুশি।

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

শাফি হোসেন চিশতী ইউশার চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ
সোনারগাঁওয়ে সাংবাদিক মিঠুর দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি
ফেনীতে জামাতের মেয়েকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে শিবির নেতাকে আটক
রক্তদান কর্মসূচীর নামে সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের প্রতারণার অভিযোগ
ওয়ার্ল্ড সুন্নী মুভমেন্ট ও ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটি রেভুলুশনের সমাবেশ
ইউনাইটেড হসপিটালে মৃগীরোগের আধুনিক চিকিৎসা শীর্ষক অনলাইন ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত
সাংবাদিক এ কে আজাদ’র পিতার ২য় মৃত্যু বার্ষিকী আজ
বন্দরে লকডাউনে ঘুরতে বের হওয়ায় জরিমানা