১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

ময়মনসিংহে জমজমাট নজরুল জন্মজয়ন্তী মেলা

ময়মনসিংহের ত্রিশালে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৩ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে কবির বাল্যস্মৃতি বিজড়িত দরিরামপুর নজরুল একাডেমি মাঠে চলছে তিনদিন ব্যাপী নজরুল জন্ম জয়ন্তী মেলা।

দীর্ঘ দুইবছর করোনার কারনে মেলা উদযাপন করা হয়নি। কিন্তু এবার এই উৎসব আমেজে মুখরিত হয়ে গেছে চারপাশ। প্রথম দিন তুলনামূলক ভিড় না হলেও ২য় ও ৩য় দিন ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

সরেজমিনে মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, রাজধানী ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে দর্শনার্থীরা ভিড় জমাচ্ছে এ মেলায়। এ মেলায় বরাবরই থাকে উৎসব আমেজে মুখরিত। এবারের মেলায় স্টল রয়েছে প্রায় ৪শ। দল বেঁধে দর্শনার্থীরা আসছেন। মেলায় দর্শনার্থীদের এমন আগমনে বিক্রেতাদের মুখে উচ্ছাসের হাসি। মেলায় আসা ক্রেতারা বিভিন্ন স্টল ঘুরে ঘুরে চাহিদা মতো নিজের কাঙ্খিত পণ্যটি কেনার চেষ্টা করছেন। অন্িযদকে, দোকানিরাও নানা রকম খেলনার পসরা সাজিয়ে বসেছে মেলায়। আবার মাঠের মধ্যে শিশুদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে হকাররা উড়াচ্ছে পাখি ও রকমারি গ্যাসের বেলুন। প্লাস্টিকের তৈরি এ পাখিগুলো শিশুরা সহজে উড়াতে না পারলেও তা নিয়ে চলে তাদের কাড়াকাড়ি। মেলায় কারুপণ্যের স্টল, বাঁশের বাঁশি, জাদু প্রদর্শনী, নাগরদোলাসহ রয়েছে বাহারি আয়োজন। এছাড়া রয়েছে নিত্যপ্রয়াজনীয় ও গৃহস্থালি সামগ্রীসহ হরেকরকম খাবারের স্টল।এমনই দেখা গেছে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৩তম নজরুল জন্মজয়ন্তী উপলক্ষ্যে দরিরামপুরে আয়োজিত নজরুল জন্ম জয়ন্তী মেলায়।

একাধিক দর্শনার্থী জানান, করোনার মাঝে প্রতিটি দিন কেটেছে ভয়াবহ। উৎসব আমেজ বিহীন ছিল ত্রিশাল। নজরুলের স্মৃতি বিজরিত ত্রিশালে ছিল না প্রাণের ছোঁয়া। কিন্তু এবার উৎযাপিত হচ্ছে প্রাণের মেলা। দীর্ঘ দুই বছর পর নজরুল মেলা উদযাপিত হওয়ায় ত্রিশালে ফিরেছে প্রাণের ছোঁয়া। তাই আমাদের মাঝে উৎসাহ ও উদ্বীপনা বিরাজ করছে। প্রতি বছরই মেলায় একাধিকবার আসি এবং কেনাকাটা করি। মেলা প্রাঙ্গণ আমাদের বাড়ি থেকে একটু দূরে হওয়ায় আগে ভাগেই চলে আসলাম। মেলায় না আসলে কেমন অতৃপ্ত লাগে নিজের কাছে, তাই কষ্ট হলেও এসেছি মেলায় ঘুরে দেখতে। যদি পছন্দ হয় এবং দামে সাশ্রয়ী হয় তাহলে কিছু নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কিনব।

ঢাকা থেকে আসা স্টল মালিক আবুল কোলাম জানান, আমি কয়েক বছর যাবৎ নজরুল মেলায় দোকান নিয়ে আসি। এবারো এসেছি। মেলায় প্রচুর মানুষ ভিড় জমাচ্ছে। এত মানুষের মধ্যে ক্রেতার চেয়ে দর্শনার্থীর সংখ্যাই বেশি দেখা যাচ্ছে। আশানুরূপ কেনাবেচা হচ্ছে না। তবে মানুষের আগমণ দেখে বলা যায় ভাল কেনাবেচা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আকতারুজ্জামান জানান, মেলায় নিরাপত্তার জন্য আইনশৃঙ্খলা উপকমিটি গঠন করা হয়েছে। ক্রেতারা নির্বিঘ্নে মেলায় আসবেন এবং পছন্দের জিনিস কিনে বাড়ি ফিরে যাবেন। মেলায় নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছে।

(Visited ৪ times, ১ visits today)

আরও পড়ুন

হযরত খাজাবাবা (রঃ) ও জামে আওলিয়া কেরামের পথ পূণরুদ্ধার সম্মেলন অনুষ্ঠিত
বীর মুক্তিযুদ্ধা আব্দুল আলিম এর সহধর্মীনি নুরজাহান বেগম আর নেই
ফজলে রাব্বীর আসনে নৌকার হাল ধরতে চান যারা
মহান জাতীয় শহীদ দিবস শাহাদাতে কারবালা দিবসে ফেনীতে র‍্যালী
মুসলিম মিল্লাতের মহান জাতীয় শহীদ দিবস উপলক্ষে ওয়ার্ল্ড সুন্নী মুভমেন্টের সমাবেশ
মহররম ঈমানী শোক ও ঈমানী শপথের মাস, আনন্দ উদযাপনের নয় – আল্লামা ইমাম হায়াত
এমপির বিরুদ্ধে উপজেলা চেয়ারম্যানকে কিল-ঘুষির অভিযোগ
বঙ্গবন্ধুর সমাধীস্থলে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের শ্রদ্ধাঞ্জলী